Dr. Aminul Islam

Published:
2021-04-08 12:17:45 BdST

প্রাপ্ত বয়স্ক মাওলানার মোবাইল ফোনে পর্ণ থাকা মোটেই অস্বাভাবিক নয় : ডা পিনাকী ভট্টাচার্য


 


ডেস্ক
---------------
বাংলাদেশের আলেম উলামায়ে কেরামদের সমর্থক, তৌহিদী জনতার প্রিয় লেখক ডা পিনাকী ভট্টাচার্য বলেছেন,
একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মাওলানার মোবাইল ফোনে পর্ণ থাকা মোটেই অস্বাভাবিক কোন বিষয় নয়।

ডা পিনাকী ভট্টাচার্য তাঁর প্রবাসী অবস্থান থেকে নিয়মিত বিভিন্ন ইস্যুতে তৌহিদী জনতার পক্ষে লিখে থাকেন।

তাঁর ভেরিফাইড ফেসবুক আইডি থেকে লেখাটি সংগ্রহ করে প্রকাশ করা হল

*******
ডা পিনাকী ভট্টাচার্য লিখেছেন,

মওলানা রফিকের মোবাইলে নাকি পর্ণ পাওয়া গেছে। প্রথম প্রশ্ন হচ্ছে তার মোবাইল হাতানো হইছে কোন আইনে? কাউকে গ্রেফতার করলে কী তার মোবাইল হাতানো যায়? না যায়না। এমনকি বাংলাদেশের প্রচলিত আইনেও মোবাইল হাতানো যায়না। এর জন্য পারমিশন নিতে হয়, এমনকি ফোনে আড়ি পাতার জন্যও পারমিশন নিতে হয় লিখিত। মওলানা রফিকের মোবাইল হাতানোর পারমিশন কে দিয়েছে, কাকে দিয়েছে?

বাংলাদেশের সংবিধানে ব্যক্তির গোপনীয়তার অধিকার স্বীকৃত। যদিও এই সাংবিধানিক অধিকারকে কাচকলা দেখিয়ে ফোনে আড়ি পাতার আইন করা হয়েছে যা সংবিধানের সাথে সাংঘর্ষিক। এভাবেই সংবিধানকে মোটামুটি তেজপাতা করে ফেলা হয়েছে।

মোবাইল হাতানো আন্তর্জাতিক আইনেও অপরাধ। জাতিসংঘের নাগরিক ও রাজনৈতিক অধিকারসংক্রান্ত আন্তর্জাতিক ঘোষণার ১৭ নম্বর ধারায় বলা হয়েছে, কোনো ব্যক্তির নিজস্ব গোপনীয়, পরিবার, বাড়ি ও অনুরূপ বিষয়কে অযৌক্তিক বা বেআইনি হস্তক্ষেপের লক্ষ্যবস্তু বানানো যাবে না, তেমনি তার সুনাম ও সম্মানের ওপর বেআইনি আঘাত করা যাবে না।

পর্ণ দেখা অপরাধ নয়। ব্যক্তিগত প্রয়োজনে পর্ণ স্টোর করাও অপরাধ নয়। যে সমস্ত চিকিৎসক যৌন বিষয়ে চিকিৎসা করেন তাদের কাছে রোগীর চিকিৎসার প্রয়োজনেই পর্ণ মজুত থাকে। পর্ণ দেখে শারীরিক উত্তেজনা সঞ্চার করার বৈধ পরামর্শ একজন চিকিৎসক তার রোগীকে দিতে পারেন। ফার্টিলিটি সেন্টারে নানা জায়গায় পর্ণ লাগে। একজন প্রাপ্ত বয়স্ক মাওলানার মোবাইল ফোনে পর্ণ থাকা মোটেই অস্বাভাবিক কোন বিষয় নয়।

অবশ্য কারো যদি ধ্বজভঙ্গ থাকে বা যদি তার বিচি কেটে খোজা করে দেয়া হয়ে থাকে, তাহলে তার অন্য সক্ষম পুরুষের বিষয়ে ঈর্ষা থাকা স্বাভাবিক। পর্ণ তার কাছে অপ্রয়োজনীয়।

আপনি বালেগ হইছেন, প্রাপ্তবয়ষ্ক হইছেন আপনি যদি পর্ণ দেখা নিয়া স্টিগমাটাইজড থাকেন তাহলে তো বিপদ ভায়া। আপনি তো মুভি থিয়েটারে পর্ণ চালাইতেছেন না। যদিও আমাদের জেনারেশন ভিসি আরে পর্ণ দেখেই বড় হয়েছে, নাম ছিলো ব্লু ফিল্ম, বাংলায় বলা হতো নীল ছবি। ভিসিআর দেখতে গেলে নীল ছবিয়ালেরা ডাক দিতো, আয় বুলু আয় চালু।

আমাদের  লাঠিয়াল বাহিনীর ভায়েরা পর্ণ দেখেন না। কারণ উনাদের বিচি কেটে আগেই খোজা করে দেয়া হয়েছে। পর্ণ দেখলেই উনারা অবাক হন, ভাবেন, আরে, এটা আবার কী কাজে লাগে। অবাক হয়ে বলেন, ছিঃ ছিঃ ছিঃ তুমি এতো খারাপ?

মুনির চৌধুরীর কবর নাটকে একটা সংলাপ ছিলো এমন। খুলি উড়ে যাওয়া এক শহীদকে রাজনৈতিক নেতা বলছেন, তোমার মাথা আছে বুঝার চেষ্টা করো। সেই শহীদ জবাব দিচ্ছে, ছিলো, এখন নেই, খুলিই নেই উড়ে গেছে।

আপনারা এই মোবাইল হাতানো আর সংবাদ প্রকাশ করা সমকালকে যদি জিজ্ঞেস করেন, ভাই আপনার শরীর জাগাতে কী এসবের দরকার হয়নি কখনো? আমার ধারণা তারা বিমর্ষ বদনে বলবে, ধুর ভাই, কেমনে লাগবে, বিচিই নাই কেটে দিয়েছে।
**********

আপনার মতামত দিন:


কলাম এর জনপ্রিয়