|

ক্রিকেটকে নিয়ে নোংরা প্রোপাগান্ডার সমুচিত জবাব দিচ্ছেন একজন ডাক্তার


Published: 2018-03-20 13:06:04 BdST, Updated: 2018-05-26 00:53:43 BdST



মেজর ডা. খোশরোজ সামাদ
_____________________________

সম্প্রতি খেলায় বাংলাদেশের বিজয় কানের ঠিক উপর দিয়ে ফসকে গেছে ।ক্রিকেট সবসময়ই অনিশ্চয়তার খেলা।শেষবলে পুরো দাবার সমীকরণ বদলে যাওয়ার ইতিহাস হাজারে হাজার ।'ব্লেম গেম' করে কখনও দলনায়ক সাকিব বা রুবেলের দিকে তীক্ষ্ণ তীর ছুঁড়ে অথবা টেবিল থাপ্পর মেরে ভেঙ্গে ফেলা হয়ত যায় কিন্তু তাতে সমস্যার কোন সমাধান হয় না।

২।বাংলাদেশের টেস্ট খেলবার ইতিহাস বেশী দিনের নয়।সেই তুলনায় ভারতের অভিজ্ঞতা সেই প্রাগৈতিহাসিক যুগের ।বাংলাদেশ যে কয়বার টেস্ট খেলেছে ভারত খেলেছে তার অনেকগুন বেশী ।আমাদের দলকে নিয়ে আমরা প্রত্যাশার পাহাড় গড়তে দোষ নাই কিন্তু খেলোয়াড়দের পোস্ট মরটেম করবার আগে বাস্তবতা বিবেচনায় নেয়া উচিত ।

৩।তামাম দুনিয়ার সব ক্রিকেট দলের কিছু না কিছু খেলোয়াড়ের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে মুখোরোচক গল্প বাজারে প্রচলিত আছে ।ইমরান খানের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে শ্রেষ্ঠ সময়েই তার বৃহস্পতি তুঙ্গে ছিল। তাই রুবেলের খারাপ খেলার সাথে নৈতিকতা জড়িয়ে ফেলাটাও এক ধরণের অনৈতিকতা ।আমাদের ধারাল জিহবা থেকে খেলোয়াড়েরাই শুধু নয় তাদের স্ত্রী -পরিজনেরাও রক্ষা পায় নি ।

৪।ভারতকে জিতিয়ে আনার জন্য অনেক রাঘব বোয়ালরাও আছে ।আছে কোটি কোটি ডলারের বিনিয়োগ।আছে,আই সি সি 'র প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষ অঙ্গুলি হেলন। সর্বোপরি পর্দার নেপথ্যে আছে চাণক্য কূটনীতির কঠিন বেড়াজাল।

৫।আমরা 'বুড়ো হাবড়া'রা কতটুকু 'স্ট্রেস নিতে পারি?কেউ সামান্য কটু কথা বললেও আমরা মানসিকভাবে বিপর্যস্ত হয়ে পরি ।আমাদের আউটপুট কমে যায়। ভালো করে দাঁড়ি গোঁফ না গজানো বাংলার খেলোয়াড়দের মাঠের ভিতরে ও বাহিরে ,ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় ,সোশাল নেট ওয়ার্কে খেলায় জিতবার জন্য যে পরিমান স্নায়বিক চাপ দেয়া হয়েছে তাতে তাদের বদ্ধ উন্মাদ হয়ে যাবার কথা ছিল।খেলায় হারজিৎ থাকা সত্ত্বেও পরাজয়ের সিটি বাজতে না বাজতে তাদের যে ভাবে বস্ত্র হরণ করা হয়েছে তাতে তারা হেমলকের পেয়ালা যে তুলে নেয় নি ,সেটাই যথেষ্ট।

৬।প্রিয় টাইগার্স ,বিচ্ছিন্ন কিছু ছিদ্রান্বেষী ছাড়া ১৬ কোটি বাংলাদেশীর ভালবাসায় তোমরা সিক্ত ।আত্মবিশ্বাস নিয়ে এগিয়ে যাও, শেষ বিচারে তোমাদের পুরস্কার শুধুই বিজয়ের বরমাল্য ।

_______________________________

মেজর ডা. খোশরোজ সামাদ ।

আর্মড ফোরসেস ফুড এন্ড ড্রাগ ল্যাবরেটরির উপ অধিনায়কের দায়িত্ব ভার গ্রহণ করেছেন।

এর আগে ছিলেন আর্মড ফোরসেস মেডিকেল কলেজএ ।
ওয়েস্টার্ন সাহারায় শান্তিরক্ষী হিসেবে সফলভাবে এক বছরের কাজ শেষে আর্মড ফোরসেস মেডিকেল কলেজে সহকারী অধ্যাপক, ফার্মাকোলজি বিভাগে যোগ দিয়েছিলেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।