|

পোশ্চারাল ব্যাক পেইন


Published: 2017-01-09 09:13:19 BdST, Updated: 2017-08-20 12:01:59 BdST


রাজেশ মজুমদার
______________________


চিকিৎসা শাস্ত্রে একধরণের ব্যথা কে "পোশ্চারাল ব্যাক পেইন" নামে অভিহিত করা হয়। বাংলাদেশের প্রাথমিক বিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থী এই ব্যথায় আক্রান্ত হয়। মূলত ঠিকমতো না বসা, সঠিক অবস্থান ও পজিশনে না বসার কারণে কোমরে, ঘাড়ে ও মেরুদণ্ডে এই ব্যথা হতে পারে।


নীড বেইজড সাবক্লাষ্টার শেষে শিক্ষকদের এবং স্কুল ছুটির পরে শিক্ষার্থীদের এমন ব্যথায় আক্রান্ত হতে প্রায়শই দেখা যায়। বসার ক্ষেত্রে আন্তর্জাতিক স্বীকৃত মাপগুলো হলো—বয়স চার বছর ১২ ইঞ্চি চেয়ার, ৬ থেকে ৯ বছর ১৪ ইঞ্চি, ১০ থেকে ১২ বছর বয়সীদের ১৬ ইঞ্চি ও ১৩ বছরের পর থেকে ১৮ ইঞ্চি উচ্চতার চেয়ার।


১৩ বছরের পর সবাই একই সাইজের চেয়ারে বসতে পারে। তবে মাপ যেমনই হোক না কেন, আদর্শ মাপের চেয়ারে বসলে শিক্ষার্থীর দুই পায়ের পাতা মেঝেতে সমান্তরাল থাকবে এবং হাঁটু ৯০ ডিগ্রি অর্থাৎ খাড়া থাকবে। আর চেয়ার থেকে টেবিলের আদর্শ দূরত্ব হলো ৮ ইঞ্চি কিন্তু সেটি যদি বেঞ্চ হয় আর পিঠের জন্য কোনো সাপোর্ট না থাকে, তাহলে এই বয়সে কোমরে, ঘাড়ে ও মেরুদণ্ডে ব্যথা হতে পারে। একটি বিষয় হল যে স্কুলে শিশুদের বিশেষ করে মেয়েদের ব্যাক প্রবলেম, যাকে স্কলিওসিস বলে তাও মূলত বাসার সমস্যার কারণে শুরু হয়।


প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ক্লাসের দৈর্ঘ্য ৩০ মিনিট থেকে প্রায় এক ঘণ্টা হয়। ক্লাস চলাকালীন শিক্ষার্থীদের ওঠার সুযোগ নেই। বংলাদেশের প্রতিটি বিদ্যালয়েই শিক্ষার্থী ভর্তির হার উর্ধমূখী ফলে প্রতিটি বেঞ্চে ৪/৫ জন শিক্ষার্থীকে ও বসতে হয়। হাইবেঞ্চ যেহেতু শিক্ষার্থীদের স্কুল ব্যাগের চেয়ে ছোট তাই শিক্ষার্থীরা পিচনের হাইবেঞ্চে হেলান দিলে শ্রেণিকক্ষে নানান সমস্যা দেখা যেয়। টানা ২০ মিনিট কোনো শক্ত জায়গায় বসে থাকলে শিক্ষার্থীরা সহজে অমনোযোগী হয়ে পড়ে সেখানে আমরা শিশুদের সকাল ৯:৩০ থেকে ৪:১৫ পর্যন্ত অল্প কিছুক্ষণ খাওয়ার বিরতি ছাড়া এক নাগাড়ে বসিয়ে রাখি।


ফেইসবুকের পাতায় পাতায় আজকাল নীড বেইসড সাবক্লাস্টারের ছবিতে সয়লাব।

আমি লক্ষ্য করে দেখেছি প্রতিটি ছবিতেই প্রশিক্ষক মহোদয় তোয়ালে সাঁটানো একটি চেয়ারে বসা আর শিক্ষকবৃন্দ পা ভাঁজ করে বসে আছেন শিশুদের বসার উপযোগী বেঞ্চে। একটি প্রশিক্ষণ কার্যকর করার অন্যতম প্রধান উপকরণ প্রশিক্ষণ উপযোগী স্বাস্থ্যকর পরিবেশ। স্বাস্থ্য বান্ধব নয় এমন পরিবেশে পাঠাদান কিংবা শিক্ষার্থীদের জন্য নির্ধারিত বেঞ্চে বসে প্রশিক্ষণ কতটুকু ফলদায়ক হয় তা নিয়ে প্রশ্ন তোলাই যায়।

_______________________

লেখক রাজেশ মজুমদার সুলেখক । জনগুরুত্বপূর্ন বিষয়ে নিয়মিত লেখেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।