|

আমি কেন নারীবাদী নই : আমি কি নারী বিদ্বেষী


Published: 2016-12-03 13:19:11 BdST, Updated: 2017-07-27 06:34:34 BdST

            

 

 

ডা.নাছিমুন নাহার


_____________________________

 

 

নারীবাদী শব্দটাতে প্রবল এলার্জি আমার।
ব্যক্তিগত ভাবে আমাকে খুব ভালো করে জানে-চিনে, এমন অনেক মেয়েই আমাকে প্রায় প্রশ্ন করে--এত বড় offensive ঘটনার পরেও কেন আমি নারীবাদী নই ?! কেন আমি এখনও পুরুষ জাতিকে নিয়ে পজেটিভ লেখা লিখি ?!

আসলে আমি তো নারী/ পুরুষ নয়, লিখতে চেষ্টা করি মানুষকে নিয়ে।হয়তো পেরে উঠছি না ঠিকমতো।

যদিও আমি নিজে জীবনে অনেক কিছুরই ভিক্টিম ছিলাম।
এক সময়ে ছিলাম ডোমেস্টিক ভায়োলেন্সের আর এখন কিছু মানুষের ইনফিরিওরিটি কমপ্লেক্সে ভোগা হিংসার ভিক্টিম। আর এসব ক্ষেত্রে পুরুষ হাইলাইটস হলেও আমি খুব পরিষ্কার করেই বুঝতে পারতাম বা পরবর্তীতে বুঝেছি যে, সমস্ত ডোমেসটিক ভায়োলেন্সের পেছনে কোন না কোন ভাবে অবশ্যই কোন না কোন নারীর ইন্ধন থাকেই থাকে।কখনো সরাসরি কখনও বা পরোক্ষভাবে এতে অংশগ্রহণ করে নারী সমাজ।

তারমানে আবার এই না যে, আমি ঠিক নারীবিদ্বেষী।
তবে আমি পৃথিবীতে খুব কম সংখ্যক মেয়েদেরকে পছন্দ করি, বিশ্বাস করি, ভরসা করি। আর বাকিদেরকে আমার ভালো লাগে না,সত্যি বলতে কি করুণাও হয় তাদের জন্য, তাদের চিন্তাশক্তি এবং জীবনবোধের দীনতা এবং হীনতা দেখে ।

আর আমার পুরুষ বিদ্বেষী হওয়ার তো প্রশ্নই আসে না।
কারন আমি আমার আশেপাশে, পরিবারে, সহকর্মী এবং বন্ধুদের মাঝে অসাধারণ মানসিকতার , উদার, অপ্রয়োজনীয় কৌতুহলহীন ,সহনশীল মনের এবং দূরদর্শী চিন্তার, সৃষ্টিশীল কাজে ছেলে/পুরুষই বেশি দেখেছি মেয়েদের অনুপাতে এবং সবথেকে গুরুত্ব পূর্ণ হলো বেশীরভাগ ছেলেই জানে 'কোথায় থামতে হবে' । এই সামান্য ভদ্রতাবোধটা বেশীর ভাগ শিক্ষিত অশিক্ষিত মেয়েরই নেই।
আমি রীতিমত কৃতজ্ঞ আমার আশেপাশের পুরুষদের কাছে।যারা আমাকে কখনোই down feel করতে দেয়নি জীবন নিয়ে।যারা আমাকে এই vibes দিয়েছে "একজন বা দুজন মানুষ বা একটা ফ্যামিলি ই পৃথিবী নয়।পৃথিবীটা অনেক বড়। চেষ্টা কললে তুমি অবশ্যই পারবা
মিম্ মি।"
অথচ একই সময়ে আশেপাশের নারী সমাজ এই vibes দিয়েছে আমি কত ধৈর্যহীন/অচ্ছুৎ/ছোঁকছোঁক করেছে মসলাদার কোন গল্পের গন্ধ খুঁজে পাবার।

Honestly speaking, ছেলেদের ভাবনার গন্ডি আমাদের মতো সীমাবদ্ধ না এবং সবকিছুতেই ছেলেরা negative finding খোঁজে না।

সম্ভবতঃ মেয়েদের ছোটবেলা থেকে বেড়ে ওঠার পরিবেশটাই আমাদের মনকে ক্ষুদ্র করে ফেলে।বৃহৎ পরিসরে কিছু চিন্তা করার ক্ষমতা খুব কম মেয়ের ই দেখেছি আশেপাশে।নিজের পোষাক/ সাজুগুজু /ফিগার/ ঘর বর/ সিরিয়াল/ জামাইর জব টাকা ব্যাংক ব্যালেন্স/ শপিং/ পার্লার/ ননদ শাশুড়ি বৌমা কালচার এবং পরচর্চা করে আসলে সময় কই সমাজ দেশ পৃথিবী নিয়ে ভাববার , তাই না ?

নারীবাদী হতে হলে তসলিমা হতে হবে এমন কিন্তু না, বেগম রোকেয়া হয়ে দেখাও।পুরুষকে গালি দিয়ে নারী কে সতী সাবিত্রী বানিয়ে লাভ নেই।পৃথিবী সৃষ্টির শুরুতেই প্রমাণ আছে স্ত্রী বুদ্ধির পরিণাম কতটা ভয়াবহ হতে পারে তার।

যাহোক,এখুন আমারে বইকুন চাই যত ইচ্ছা।আমি প্রস্তুত বকা শোনবার জইন্য।

 


_________________________________


ডা.নাছিমুন নাহার মিম্ মি।
Occupational health expert ।
পাবলিক হেলথ নিয়ে কাজ করেন। মাল্টি ন্যাশনাল ইন্ডাসট্রিতে কর্মরত।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।