Ameen Qudir

Published:
2018-02-23 04:32:27 BdST

ডা. নৃপেন, অনিমা বৌদি : অামাদের ক্ষমা করে দিও


 

 


ডা. রাশিদুল হাসান

_____________________________


কেমন করে তোমাদের মুখোমুখি হব। কেমন করে , কোন মুখে তোমাদের সামনে দাঁড়াব। অনিমা বৌদি : অামাদের ক্ষমা করে দিও । অামরা তোমাকে রক্ষা করতে পারি নি। তোমাকে বাঁচাতে পারি নি।

এই নষ্ট সমাজ তোমাকে রক্ষা করতে পারল না। ছিনতাইকারীর হেঁচকা টানে তোমাদের তিলে তিলে গড়ে তোলা সোনার সংসার আজ শ্মশানে পরিনত হল।

দেশের ডাক্তারসমাজকে গভীর শোক ও পরিতাপের সঙ্গে জানাচ্ছি অনিমা বৌদি আর বেঁচে নেই। সদা হাস্য বৌদি আর নেই। তার জীবনাবসান ঘটেছে নির্মম নিষ্ঠুর ঘটনায়।
আজ নিজেদের বিবেকের কাছে কি জবাব দেব !

শাদা মনের মানুষ ডা. নৃপেনদাকে কি ভাষায় শান্তনা দেব।
সব শান্তনার ভাষা আজ মুক স্তব্ধ শোকের সাগরে।

Image may contain: 2 people, people smiling, people standing

ফরিদপুরে মোটরসাইকেল আরোহী ছিনতাইকারীদের কবলে পড়ে গুরুতর আহত হয়েছিলেন নার্স অনিমা ভৌমিক বিশ্বাস (৪৬)। রাস্তায় মৃতবৎ পড়ে ছিলেন তিনি। বাঁচার আকুতিতে সাড়া দেয় নি পথচারী। তিনি ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন। ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক নৃপেন্দ্রনাথ বিশ্বাসের স্ত্রী ছিলেন তিনি।


দুই দিন আগেই অনিমাবৌদিকে ক্লিনিক্যালি ডেড ঘোষনা করেছিল চিকিৎসকরা। তারপরও লাইফ সাপোর্টে ছিলেন তিনি।

Image may contain: 3 people, people standing

 


গত শনিবার সকালে অনিমাবৌদি রিকশাযোগে তাঁর কর্মস্থল ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে যাচ্ছিলেন। সকাল সাড়ে ৭টার দিকে শহরের ঝিরটুলী এলাকার সদর ভূমি অফিসের সামনে মোটরসাইকেলে করে এসে দুই ছিনতাইকারী তার হাত থেকে ভ্যানিটি ব্যাগ ছিনিয়ে নেয়। এ সময় অনিমা রিকশা থেকে পাকা সড়কের ওপর পড়ে মাথায় গুরুতর আঘাত পান। তাঁকে প্রথমে ফরিদপুর মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল ও পরে এয়ার অ্যাম্বুলেন্সে করে ঢাকায় নেওয়া হয়।


অনিমাবৌদির মেয়ে প্রাপ্তি বিশ্বাস ফরিদপুর ডায়াবেটিক মেডিক্যালে এমবিবিএস পড়ছেন। ছেলে প্রত্যয় বিশ্বাস সপ্তম শ্রেণির ছাত্র। অরুনীমা ও নৃপেন দম্পতি ফরিদপুর শহরের ঝিলটুলী দক্ষিণ কালীবাড়ী এলাকার একটি ফ্লাটে থাকতেন।

____________________________

ডা. রাশিদুল হাসান ; ঢাকা


মেডিক্যাল ক্যাম্প এর জনপ্রিয়