|

বৃক্ষমানব সুচিকিৎসায় বিশ্ব অবাক আর আমরা আছি হাতের লেখা নিয়ে


Published: 2017-01-10 10:34:31 BdST, Updated: 2017-09-21 07:20:08 BdST


ডাক্তার প্রতিদিন
_______________________

ডাক্তারদের হাতের লেখা নিয়ে আদালতের নির্দেশনা নিয়ে নানামুখী আলোচনার শেষ নেই। ভুক্তভোগী সাধারণ মানুষ, চিকিৎসক সমাজ স্বাগত জানান এই সিদ্ধান্তে। যদিও কতিপয় খারাপ হস্তাক্ষরের জন্য পুরো এক কমিউনিটির পেশাজীবীদের হেয় করা যায় না। ডাক্তারদের কথায় উঠে এসেছে আরও জরুরি কিছু প্রসঙ্গ ও মানবসেবার ইস্যু।

 


ডাঃ রাজীব দে সরকার বলেছেন,

বিশ্বকে অবাক করে দিয়ে বৃক্ষমানব বাজানদারকে ১৬ টি সার্জারীর পরে সুস্থ করে তোলা বাংলাদেশের চিকিৎসকদের নিয়ে আন্তর্জাতিক মিডিয়াও যখন সরব ও মুগ্ধ ।

ঠিক তখন বাংলাদেশে রীট হচ্ছে, রুল জারি হচ্ছে - কেন ডাক্তারদের হাতের লেখা খারাপ তা নিয়ে!!
এবংঠিক তখন ৬ দিন ধরে নিখোঁজ থাকা সহকারী সচিব/ নির্বাহী ম্যাজিসট্রেট পদমর্যাদার একজন চিকিৎসক এর ব্যাখ্যাহীন মৃত্যু নিয়ে আমাদের কারো কোন মাথাব্যাথা নেই !!

 

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়এর
ডা. আইনুল হক বলেন,
আদালতের নির্দেশ এসেছে ডাক্তারদেরকে সুন্দর করে স্পষ্টভাবে ক্যাপিটাল অক্ষরে প্রেসক্রিপশন লিখতে হবে। আমার লেখা সুন্দর না, স্পষ্ট কিনা জানিনা আর ক্যাপিটাল লেটারে চুলকানি। বিপদের গন্ধ পেয়ে একটা স্যাম্পল দিলাম ।

 

 


চট্টগ্রামের প্রখ্যাত লোকসেবী চিকিৎসক, পেশাজীবী নেতা ডা. রোমেল শাহাদত হোসেন বলেন, ডাক্তার যেহেতু তাই সবার কথাই মানতে হবে। প্রেসক্রিপশন এ জেনেরিক নাম এবং ট্রেড নাম দুটোই লিখে দিতে হবে। তারপরে রোগী যদি ঔষধ খেতে ভুল করে বা ভুলে যায় এবং তাতে রোগীর কোন ক্ষতি হলে, তখন হয়তো নির্দেশ কিংবা পরামর্শ আসবে- এখন থেকে ডাক্তারকে ঔষধ খাইয়েও দিতে হবে, নয়তো ডাক্তারের বিরূদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।।

 


প্রবাসী ডা. ফেরদৌস আহমেদ ফয়সাল বলেন,
ভালো ছাত্র ছিলেন বলেই আপনি আজ ডাক্তার। এ নিয়ে যদি আপনি গর্ব করিতে পারেন তাহলে আপনার হাতের লিখা পড়িবার যোগ্য নয় এর কারনে আপনার লজ্জাবোধও করা উচিত।

সারাজীবন লিখিত পরীক্ষা দিয়ে ভালো রেজাল্ট করা একজন ডাক্তারের হাতের লিখা পড়বার উপযুক্ত নয় এমন তো হতে পারে না তাই না? তাই প্রেসক্রিপশন পাঠযোগ্য না হবার পিছনে আন্তরিকতার অভাবই প্রধান কারন বলে আমার ধারনা। আর আন্তরিকতার অভাব নিয়ে রোগীকে ভালো চিকিৎসাও দেয়া সম্ভব বলে মনে করার কারন নাই।

পুনশ্চঃ হাতের লিখা সুন্দর কিংবা অসুন্দর সেটা নিয়ে কথা হচ্ছে না, পাঠযোগ্য কিনা সেটাই আলোচনার বিষয় এখানে।

সৈয়দ মনিরুল ইসলাম বলেন, হাতের লিখা পাঠ যোগ্য বলিয়া SSC,HSC পাশ করা তথা ভাল ফলাফল করার পরে ডাক্তারী পরা সম্ভব ।নইলে উচ্চ মাধ্যমিক ডিঙানো সম্ভব হত না ।অবশ্য ঐখানে ইংরেজি বাদে সব বিষয়েই বাংলায় লিখতে হয়।তবুও হাতের লিখা পাঠ যোগ্য করার জন্য ট্রেনিং ব্যবস্থা করা যাইতে পারে ।অন্য দিকে অনেক ঔষধ এর নাম এমন পিকুলিয়ার যে পাঠ যোগ্য হবার পরেও বুঝানোযোগ্য হয় না ।সুতরাং এই দুই বিষয়ে পারদর্শী কে দোকানে নিয়োগের ব্যবস্থা করতে হবে ।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।