Ameen Qudir

Published:
2019-01-10 13:01:03 BdST

শোক এপিটাফএক মেডিকেল কিংবদন্তির নীরব মহাপ্রয়াণ : ডাক্তাররা এভাবেই মানবসেবা করে যান


 

 
ডা.স্বীকৃতি সাহা
____________________________

এক মেডিকেল কিংবদন্তির নীরব মহাপ্রয়াণ ঘটল। কেউ জানলো না। মিডিয়াও জানালো না। এই নারী চিকিৎসক বাংলাদেশের চিকিৎসা সেবার পথিকৃৎ। তাঁর হাত ধরেই এগিয়েছে আমাদের মৌলিক স্বাস্থ্য সেবা। তিনি অধ্যাপক ডা. আফজালুন নেসা । বর্ণাঢ্য জীবন এই মহিয়সীর। তিনি অনন্য মেধাবী। জীবনটা দিয়েছেন মানবসেবায়। কিন্তু কি স্বীকৃতি পেয়েছেন তিনি। মেডিকেল সেক্টরের মানুষের এমন নীরবেই মানবসেবা করে যেতে হয়। তারা করে যান জীবনভর। তাঁর সুদীর্ঘ কর্মজীবনে একাধারে স্বাস্থ্য সেবার পাশাপাশি তিনি অজস্র নবীন এনাসথেটিস্টদের প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বাংলাদেশে এনাসথেশিয়া সেবায় আমূল পরিবর্তন আনেন।
সুলেখক মাসুদা এন আনাম জানাচ্ছেন,
চলে গেলেন অধ্যাপক ডা. আফজালুন নেসা
বাংলাদেশে এনাসথেশিয়া প্রসারের পথিকৃৎ অধ্যাপিকা আফজালুন নেসা ১০ জানুয়ারি এ্যাপোলো হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স ছিল ৮৬ বছর। খবর পারিবারিক সূত্রে প্রাপ্ত।
অধ্যাপিকা আফজালুন নেসা ১৯৫৭ সালে ঢাকা মেডিকেল কলেজ থেকে এম বি বি এস ডিগ্রি লাভ করেন। পরবর্তীকালে যুক্তরাজ্যে এনাসথেশিয়ায় দীর্ঘদিন প্রশিক্ষণ ও উচ্চতর শিক্ষালাভের পর ষাটের দশকে তিনি তদানীন্তন পূর্ব বাংলায় ফিরে আসেন ও কর্মক্ষেত্রে যোগদান করেন। তাঁর সুদীর্ঘ কর্মজীবনে একাধারে স্বাস্থ্য সেবার পাশাপাশি তিনি অজস্র নবীন এনাসথেটিস্টদেরর প্রশিক্ষণের মাধ্যমে বাংলাদেশে এনাসথেশিয়া সেবায় আমূল পরিবর্তন আনেন। ১৯৯৩ সালে তৎকালীন আই পি জি এম আর (বর্তমানে বি এস এম এম ইউ)-এ এনাসথেশিয়া বিভাগের প্রধান হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন। এনাসথেশিয়ায় তাঁর অবদানের জন্য বি এস এম এম ইউ ২০১৮ সালে তাঁকে সম্মানসূচক ডক্টরেট দান করে।
তিনি প্রয়াত শিশু চিকিৎসক ও ভাষা সৈনিক অধ্যাপক বদরুল আলমের সহধর্মিনী ছিলেন। ডাঃ বদরুল আলম ১৯৫২ সালের ভাষা আন্দোলনের শহীদদের স্মরণে প্রথম শহীদ মিনারের নকশা করেন। তার অবদানের জন্য ২০১৮ সালে তিনি একুশে পদক লাভ করেন। অধ্যাপিকা আফজালুন নেসার তিন সন্তান। পুত্র আশফাক স্বপন যুক্তরাষ্ট্রে প্রবাসী সাংবাদিক, দুই কন্যা নজরুল সঙ্গীত শিল্পী কল্পনা আনাম ও প্রসিদ্ধ রন্ধন শিল্পী আলপনা হাবিব।

Prof Afzalun Nessa, Pioneer in Anaesthesiology, Passes Away
Prof Afzalun Nessa, a pioneering medical practitioner who revolutionized the practice of anaesthesiology in Bangladesh, breathed her last Jan. 10 at Apollo Hospital, according to family sources. (Innalillahe…rajeun). She was 86.
Prof. Nessa got her MBBS degree from Dhaka Medical College in 1957. Following an extended period of postgraduate training and education in anaesthesiology in the United Kingdom, she returned to erstwhile East Pakistan in the late 1960s and joined the government health service. During her long and distinguished medical career she trained countless novice anaesthetists alongside providing medical service. Her efforts brought a sea-change in the practice of anaesthesiology in Bangladesh with the introduction of latest Western medical practices.
She retired in 1993 as the head of the department of anaesthesiology at the erstwhile Institute of Post Graduate Medicine and Research (currently Bangabandhu Sheikh Mujib Medical University.) BSMMU conferred an honorary Ph.D. on her in 2018 for her contribution to the advancement of anaesthesiology in Bangladesh.
Prof Nessa was the wife of late Prof Badrul Alam, a child specialist and a veteran of the 1952 language movement. Dr. Alam designed the first martyrs’ memorial built immediately after the language movement in 1952. He was awarded a posthumous Ekushey Padak for his contribution in 2014. She is survived by her son, Ashfaque Swapan, a U.S.-based journalist; Kalpana Anam, an exponent of Nazrul Sangeet; and Alpana Habib, a noted culinary artist.
____________________________

ডা.স্বীকৃতি সাহা । ঢাকা।


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়