|

ডাক্তারকে যখন পেটানো হচ্ছিল , তাঁর সন্তানরা কি সেখানে ছিল


Published: 2016-12-03 10:55:00 BdST, Updated: 2017-03-26 07:29:06 BdST

          

ডা. জামান অ্যালেক্স
_________________________
·

 


কয়েকদিন আগের ঘটনা। ভোলায় নাকি এক শিশু বিশেষজ্ঞের ভূল চিকিৎসায় দুই বছরের এক বাচ্চা মারা গিয়েছে.।

ভিতরে খুঁটিয়ে খুঁটিয়ে পড়লাম।বাচ্চাটি চিকিৎসকের নিয়মিত পেশেন্ট।এবারে নিউমোনিয়া ধরা পড়লে এই চিকিৎসক Exact ডোজ ক্যালকুলেট করে অ্যান্টিবায়োটিক প্রেসক্রাইব করেন।ওয়ার্ড বয় অ্যান্টিবায়োটিক ইনজেকশন পুশ্ করলে বাচ্চাটি মারা যায়।

বিভিন্ন জায়গায় ঘটনাটি পড়ে যা বুঝলাম- বাচ্চাটি মারা যাবার পেছনে কারণ ছিলো দুইটি (ক) Hypersensitivity reaction, (খ) দ্রুত ক্যালকুলেটেড ডোজের তুলনায় বেশী ডোজে অ্যান্টিবায়োটিক পুশ করা....

বাচ্চাটি মারা যাবার পেছনে চিকিৎসকের ভূমিকা কতটুকু--আমার মনে হয়, তা আমার না বললেও চলবে।যেটি বলতে চাচ্ছি, তা হলো--ঘটনাটি ঘটার পর এক শিশু বিশেষজ্ঞকে কিল-ঘুষি দিতে দিতে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।আমি দীর্ঘনিঃশ্বাস ছেড়ে ফ্যাবলেটটির স্ক্রীন অফ্ করে আবার নিজের কাজ করা শুরু করলাম.....

■■এবারের ঘটনা মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর।কোনো এক প্রাইভেট হাসপাতালে সিজারিয়ান অপারেশন চলাকালে কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে এক মহিলা মারা গেলেন।

বিশ্বের যত বড় বড় সায়েন্টিফিক এক্সপেরিমেন্ট আছে, সেখানেও সায়েন্টিফিক এরর থাকে।আমার মনে আছে, নটরডেমে Physics Lab এ যখন কোন প্র্যাকটিক্যাল প্রসিডিউর করতাম, সেখানে প্রায় প্রতিটা এক্সপেরিমেন্টের সাথে আমাকে সায়েন্টিফিক এরর এর পরিমাণ উল্লেখ করতে হতো, Acceptable limit এ থাকলে আমাদের ঐ এক্সপেরিমেন্ট থেকে ছাড় দেয়া হতো।

ঠিক একইভাবে আপনি কখনোই আশা করতে পারেন না যে, একজন চিকিৎসক ১০০ টা অপারেশনের মধ্যে ১০০ টাতেই সাকসেসফুল হবেন, এটি অবান্তর। প্রতিটা মেজর অপারেশনে তাই মৃত্যুঝুঁকি থাকে।

মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগরের ঘটনায় ফেরত আসি।পেশেন্ট মারা গেলেন কার্ডিয়াক অ্যারেস্টে, চিকিৎসকদের খুব একটা বেশী কিছু করার ছিলো না।

এর পরের ঘটনাপ্রবাহ ছিলো ভয়ংকর।ঘটনার সাথে সংশ্লিষ্ট দুই ভীত-সন্ত্রস্ত চিকিৎসক একটি রুমে অবস্থান করছিলেন।রাত দশটার দিকে তাদেরকে খোঁজার অভিপ্রায়ে প্রায় অর্ধশতাধিক রুম ভেঙে তাদেরকে বের করে থানায় নিয়ে যাওয়া হয়।

এক কাজ করুন-ঐ দুই চিকিৎসকের জায়গায় নিজেকে কল্পনা করুন।ভাবুন, আপনাকে খোঁজার জন্য অসংখ্য লোক একটার পর একটা রুম ভেঙে চলেছে।বুঝতে পারছেন?--কতটুকু ভয়ংকর ছিলো সে অবস্থা? '৭১ এ তো এভাবেই পাক হানাদারেরা আমাদের খুঁজে বের করতো!.......

 

 

 

 

■■উপমহাদেশের প্রাচীন ইতিহাস পড়েছিলাম বছর পাঁচেক আগে।বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের দাগী আসামীগুলোকে নাকি প্রাচীনকালে শাস্তিস্বরূপ এদেশে তথা এই উপমহাদেশে পাঠানো হতো।এদের সংমিশ্রণের কারণেই নাকি এ উপমহাদেশের লোকের মধ্যে চেহারায় এত রকমভেদ।

তথ্যটি কতটুকু সঠিক -তা আমার জানা নেই।তবে এদেশের লোকেদের আইনের প্রতি তোয়াক্কা না করে যে বেপোরোয়া আচরণ আমি চিকিৎসকদের সাথে করতে দেখি, তা থেকে আমি নিশ্চিত যে, আমাদের পূর্বপুরুষেরা খুব একটা সাধু লোক ছিলেন না, এটলিস্ট আচার-আচরণে তো নয়ই.....

■■এদেশে ডাঃ মীমকে কর্তব্যকাজে বাঁধা দিয়ে লাঞ্ছিত করা হয়, ডাঃ শম্পা রাণীকে তাঁর হাসপাতালেই চুলের মুঠি ধরে অপমানিত করা হয়, ডাঃ পবিত্র কুন্ডুর হাত-পা ভেঙে ফেলা হয়, ডাঃ সাজিয়াকে মেরে ফেলা হয়।আর কত বলবো?

আচ্ছা বলতে পারেন--আর অন্য কোনো প্রফেশনের কোনো সদস্যকে কি এতটা লাঞ্ছিত হতে হয়? জীবন দিতে হয়? আচ্ছা, যে শত শত VIP পুলিশ প্রোটেকশন পান--কখনো কি শুনেছেন যে তাদেরকে জনগণ মেরেছে বা আহত করেছে? তবে কেন এই অযাচিত প্রোটেকশন? আজব দেশের আজব ব্যবস্থা! জানতে চাই, যারা সবসময় শূলের উপর থাকেন, সেসব চিকিৎসকদের কর্মস্থলে পুলিশ প্রোটেকশন কোথায়?

■■কিছুদিন আগে আমার এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তার সাথে কথা হচ্ছিলো।শুনলাম, আমাদের স্বাস্থ্য সেক্টরে লক্ষ-কোটি টাকার বিভিন্ন প্রোজেক্ট চলে।অনেক টাকা নাকি রিলিজই করা যাচ্ছে না। আচ্ছা, যারা স্বাস্থ্য সেক্টরের হর্তাকর্তা--তারা কি চিকিৎসকদের নিরাপত্তার ইস্যুতে কোন প্রজেক্ট দাঁড়া করাতে পারেন না? কখনো কি তারা এই বিষয়ে চিন্তা করেছেন?

"কষ্টের কথা কি বলিবো
কষ্ট কারে বলে?
কষ্ট হইলো মনের আগুন
বুকের মইধ্যে জ্বলে...."

আর কত চিকিৎসক নিগৃহীত হলে তবে তারা এই চিন্তা মাথায় আনবেন? চিকিৎসকদের জোর করে প্রান্তীয় অঞ্চলে ধরে রাখবেন, ভালো কথা, তাদের নিরাপত্তাটা নিশ্চিত করতে এত অনীহা কেন? বুকের মাঝে মনের যে আগুন ধিকিধিকি করে জ্বলে- তা নেভানোর কি কেউ নেই?

■■এদেশে কোন চিকিৎসক নিগৃহীত হলে আমাদের চিকিৎসক নেতৃবৃন্দকে সরব হয়ে উঠতে দেখা যায়।নিগৃহীত চিকিৎসককে উদ্ধার করতে তারা এগিয়ে যান, তা নিয়ে ফেসবুকে তাদের স্ট্যাটাস দেখি, তাদের পপুলারিটি বাড়ে।

পপুলারিটি বাড়ুক, তাতে আমাদের আপত্তি নেই, লাঞ্ছিত চিকিৎসক উপকৃত হচ্ছেন-আমরা আম-চিকিৎসকরা তাতেই খুশি।

 

 

সামনে নির্বাচন।চিকিৎসক নেতৃবৃন্দের কাছে বিনীত অনুরোধ--ঘটনার পর অ্যাকশন নেয়ার সাথে সাথে-এরকম অনাকাঙ্খিত ঘটনা যাতে না ঘটে তার দিকে আপনারা একটু দৃষ্টি দিন।এরকম ব্যবস্থা আর আইন নিশ্চিত করুণ-যাতে বর্বর জনগণ চিকিৎসক দের উপর হাত তোলার সাহস না পায়।চিকিৎসকদের অনুকূলে কঠোর আইন তৈরি করতে নেতৃত্ব দিন, সেটা তৈরিতে অঙ্গীকার করুণ। আমি নিশ্চিত, শুধুমাত্র বুক ফুলিয়ে এতটুকু অঙ্গীকার করলে স্মরণকালের সর্বোচ্চ ভোটে আপনারা নির্বাচিত হবেন....

■■"স্বাস্থ্যসেবা আইন, ২০১৬ "-- তে যে সুপারিশ গুলো করা হয়েছে তা পড়লাম।একজন চিকিৎসককে যত উপায়ে দাবিয়ে রাখা যায়--তার সবটুকু চেষ্টা এই আইনে করা হয়েছে। কারা ছিলো এই খসড়া তৈরি করার সময়? চিকিৎসকদের বিরুদ্ধে এত ক্ষোভ কেন? এত বৈরিতার উৎস কোথায়--তা অবশ্য আমার জানা নেই.....

■■২০১৪ সালে ABC News এর একটা হেডলাইন বলিঃ

"Tough new Queensland laws for assault on nurses, doctors and paramedics".....

হেডলাইনটা দেখে পড়া শুরু করলাম।চিকিৎসক, নার্সের উপরে কোন ফিজিক্যাল অ্যাসল্ট হলে আগে সাজা ছিলো ৭ বছর। নতুন আইন অনুযায়ী এখন সাজার মেয়াদ ১৪ বছর।

এ প্রসঙ্সে Australia এর Health Minister- Mr. Springborg এর দু'টা উক্তি হুবহু তুলে ধরি:

●"If you think it is okay to assault our health workers, we'll give you up to 14 years to think again...."

●"It is simply not acceptable, that is why we have doubled the penalty..."

অস্ট্রেলিয়াতে সুপুরুষের বাস, আমাদের দেশে বাস করে নপুংসকের দল।জ্ঞানী লোকের জন্য ইশারাই নাকি কাফি হ্যায়, ইশারা দিলাম, বুঝে নেয়ার দায় আপনাদের.....

■■ভোলার ঘটনা দিয়ে লেখাটা শুরু করেছিলাম, ভোলার এই ঘটনা দিয়েই লেখাটা শেষ করি।

ঐ শিশু বিশেষজ্ঞকে যখন মারতে মারতে নিয়ে যাওয়া হয়েছিলো, তখন সেখানে প্রসাশনের বিভিন্ন কর্তাব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

আচ্ছা, ঐ চিকিৎসকের পুত্র-কন্যারা কি ঐ সময়ে সেখানে উপস্থিত ছিলেন? তারা কি দেখেছে--সারাজীবন ধরে যে লোকটি নিরন্তর বইখাতা উল্টিয়েছে মানুষেরই কল্যাণে, সেই লোকটিকে কি অমানুষের মত পিটানো হচ্ছে? তারা কি তাঁর অশ্রুজল দেখেছিলো? ঐ চোখের জল কি কোনো সাধারণ জল? আপনারা কি জানেন যে--ঐ জলে কত আগুন জ্বলে?.....

 

_______________________________________

_____# স্টোরিতে ক্লিনিকে হামলা, ডাক্তার নিগ্রহের প্রামান্য ছবির পাশাপাশি নারীডাক্তার নিগ্রহের প্রতিকী ছবি ব্যবহার করা হয়েছে সার্বিক বিচারে। ______________________________________


লেখক ডা. জামান অ্যালেক্স : অনন্য কথাশিল্পী।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।