Ameen Qudir

Published:
2017-04-05 06:35:32 BdST

আপনি যেভাবে তৃতীয় জেনারেশনের ক্ষতি করে গেলেন


 

ডা. সাঈদ সুজন
___________________________

"তুই একটা অপদার্থ, তোকে দিয়ে কিছুই হবে না" । - বাবা ছেলেকে বকতেছে।

সবাই ধরে নিচ্ছে - ছেলেটা বুঝি আসলেই অপদার্থ।

ভুল ধারনা।। বাবা মা ছেলে মেয়েদের অপদার্থ করে ফেলেছে।। সকাল বেলা স্কুলের ব্যাগ যেই বাবা মা টেনে দেয়, সেই বাবা মায়ের ছেলে মেয়ে কিভাবে জীবনকে টেনে নিয়ে যাবে?? তাই তো সেই সন্তান আর পদার্থ থাকে না।। আমরা শুনেছি - বাচ্চা যখন মাটিতে গড়াগড়ি খায়, এটা সেটা খেয়ে শরীরের ইমুনিটি গ্রো করায়। । ইন্টেস্টিনাল নরমাল ফ্লোরা শরীরে ঢুকায়। ।

অথচ আজকাল বাচ্চাদের মাটির ছোঁয়া পেতেই দেয় না বাবা মা।। বডি ইমুনিটি কেম্নে আসবে।। কমপ্ল্যান, বর্নভিটা, হরলিক্স দিয়া হাড্ডি মাংস সবল করতে গিয়া "Milk injury" এর শিকার হয় বাচ্চারা।। থলথলে তুলার বস্তার মত বাচ্চা। । না আছে শক্তি, না আছে সাহস। ।

বাচ্চার জন্য আয় করতে গিয়া বাচ্চাকে রেখে যায় কাজের বুয়ার কাছে।। বাচ্চাও কাজের বুয়ার আচরন রপ্ত করে। যোগ্যতাও হয় কাজের বুয়ার মত। । অথচ একটু কম আয় করে বাচ্চাকে সময় দিলে বাচ্চা আসল মানুষ হইতো। আজকাল দেখা যায়, বাচ্চার সময়কে চার ভাগে ভাগ করা যায় - বাবা মা 10%, কাজের বুয়া 50%, স্কুলের মিস 20%, ঘুম 20% ....

আজকাল বাবা মা চায় তাদের সন্তানের জন্য অনেক টাকা পয়সা রোজগার করে রেখে যেতে। যেন, ছেলে মেয়ে আরামে বসে খেতে পারে। । এতে করে আপনি তৃতীয় জেনারেশনের ক্ষতি করে গেলেন। । কারন আপনার কষ্টের টাকা বাচ্চা আরাম করে যখন খাবে, তখন সে আর কষ্ট করে আয় করা শিখবে না।। সুতরাং, " আপনার বাচ্চার বাচ্চাদের জন্য আপনার বাচ্চা কিছু রেখে যেতে পারবে না" ।। তাই - "আয় লিমিটেড করে হলেও বাচ্চাকে সময় দিয়ে সুশিক্ষিত ও কর্মঠ করে যান।। নিজের আয় নিজে খেয়ে যান।। বংশসূত্রেই সুখী হবেন"।।


______________________________

ডা. সাঈদ সুজন। লোকসেবী চিকিৎসক। জনপ্রিয় লেখক।


মানুষের জন্য এর জনপ্রিয়