Ameen Qudir

Published:
2016-12-10 13:33:42 BdST

দেহজীবি রুপসী আর ম্যাল প্র্যাকটিশনারডাক্তার-ব্যাবসায়ীঘুষখোরপত্নীর পার্থক্য কি !


ডা. শিরিন সাবিহা তন্বী
________________________

 

 

যতদূর মনে পড়ে ইন্টার্নশীপ শেষ হবার পরের ইভেন্ট।এক সিনিয়র আপুর মাধ্যমে মাসখানেকের অল্প কিছু বেশী সময় একটা এনজিওর সাথে কাজ করার সুযোগ হয়েছিল যারা কিনা সুবিধা বঞ্চিত রিস্ক এ থাকা স্পেশাল মহিলাদের নিয়ে কাজ করে।
প্রথমে আমি রুগীদের সম্পর্কে বিন্দুমাত্র ধারনা না নিয়েই রুগী দেখতে গিয়েছিলাম।কিন্তু ওদেরকে চিকিৎসা দিতে গিয়ে ঐ দেড় মাসে আমার যা অভিজ্ঞতা হয়েছে তা দেড় যুগকেও হার মানাবে।

কেন জানি না আমি ওদের ভুলতে পারি না।আর কখনো ভুলতেও পারব না।বিশেষ করে সমাজের অন্যায়ের বিরুদ্ধে কলম ধরতে গেলেই ঘুরে ফিরে ওদের মুখ গুলো ভেসে আসে!!

দু একজন বাদে প্রায় সকলেই অন্যায়ের শিকার।

যে দু একজনকে সত্যিকারের প্রফেশনাল মনে হয়েছিল তাদের একজনকে আজও বেশ মনে পড়ে!!
বেশ কটকটা রংয়ের ঝিলিক মিলিক শাড়ী পড়ে এসেছিল রুপসী।বেশ গয়না গাটি ও পরে ছিল সে।।হাতের বালা জোড়া বেশ চকচকে।।

 

 

 

দেহজীবি যারা ঘৃণা কুড়ায়_____________মডেল ছবি। 

 

 

 

 

হিষ্ট্রি নিতে গিয়ে রুপসীর সাথে কথোপকথনঃ

  • আপনি বিবাহিত???
    - হুম।বিয়া হইছে প্রায় দশ বছর।।দুইটা ছেলেও আছে।
    - আর স্বামী??
    - হেয় ভ্যান চালায়।
    - উনি জানে আপনি এসব কাজ করেন???
    - না।ম্যাডাম!আফনে জ্বে কি কন???হেয় জানলে আমারে আস্ত রাখতো???
    - তাহলে এ পেশায় কিভাবে আছেন??
    - তেনারে ফাঁকি দিয়া করি ম্যাডাম।আফনে আমারে দেইখ্যা বুঝতেছেন না ম্যাডাম?আমি পঞ্চাশ টাকার কাষ্টমার ধরি না।আমার রেইট একশ দেড়শ টাকা।দুপুর বেলা পোলার বাপ কামে গেলে হোটেল থেইক্যা আমারে ফোন দেয়।
    - আপনার ফোন আছে???
    আছে।হোটেল থেইক্যা দিছে।কম দামী মোবাইল।পোলার বাপ জানে না।গুজাইয়া রাখি।।
    - তারপর???
    - ড্রাইভাররা,লঞ্চের কেরানী,ছাত্র রা এমনকি মাঝে মাঝে অপিসের স্যারেরাও আহে।স্যারেগোর রেট দুইশ টাকা।
    ওর বলার ভঙ্গি আর ইঙ্গিতপূর্ন হাসিতে আমার গা গুলিয়ে উঠল!!
    রুপসী ওর স্বামীকে ঠকাচ্ছে।আর এমন কত গৃহবধুকে না জানি তাদের স্বামীরা ঠকাচ্ছে!!বউ যখন বাচ্চার স্কুল,বাজার,রান্না আর ঘরকন্নায় ত্রাহি ত্রাহি অবস্থা ,স্বামীটি হয়ত তখন বাজারের টাকায় কার্পন্য করে রুপসীর বাহুডোরে।।

  • এই অপকর্ম সেরে এরাই হয়ত আবার বাড়ী গিয়ে ডালে লবন কম হবার অপরাধে গৃহবধুটিকে চরম অসম্মান অপদস্ত করে ছাড়বে।।এমনকি গায়ে হাত তুলতেও কুন্ঠাবোধ করবে না!!!

রুপসীর শারিরীক পরীক্ষা করার পরে নিয়ম মত একটা গ্রুপ মেডিসিন প্রেসক্রাইব করেছিলেম।
ও উঠতে যাবে! তখন প্রচন্ড কৌতুহল বসে জানতে চাইলাম,
- রুপসী!তুমি তো অসহায় নও।স্বামী আছে।বাচ্চা আছে।তবু এই ঘৃনিত কাজ কেন করো???
বাকাঁ হেসে উত্তর দিয়েছিল রুপসী
- ম্যাডাম!স্বামী আছে।হয়ত দু বেলা ভাত জুটবে।বছরে দু খানা সুতির কাপড় জুটবে।কিন্তু হাতের বালা আর গলার চেইন ইমিটিশন হইলেও কানের যেই দুলজোড়া দেখতেছেন আর নাকে বড়ই ফুল!এই দুইটাই সোনার।।
মাইয়া মানুষ হইয়া জন্মাইছি।গরীব বইলা আমগো কি সাদ আল্লাদ থাকতে নাই।।
এই কাম না করলে তো পেটে ভাতে।সাদ আল্লাদ পুরন করতাম কি দিয়া?????
আমি স্তব্ধ হয়ে রুপসীর মুখের দিকে তাকিয়ে থাকলাম।দুই ছেলের মা এটা কি বলতেছে?

 

 

 

মাদক ব্যবসায়, ম্যাল প্রাকটিস করা টাকার পাহাড়ে চড়ে কোটিটাকার পত্নী ; মডেল ছবি। 

 

_________________

 

 

 

রুপসী আমার মাথায় গেঁথে গেছে!ওর ঐ বাক্যগুলো আমার মাথার ভিতরে আজ ও বাজতে থাকে যখন আমি দেখি কোন স্বামীর বাৎসরিক বেতনের থেকে বেশী দামের আউট ফিট সমেত ফটোসেশন করে ঘুষখোর পত্নী।।যখন ঘুষখোরের পরিবার ঘুষ শুনলেই এমন চমকে ওঠে যে পুরনো প্রবাদ মন পড়ে,ঠাকুর ঘরে কে?আমি কলা খাই না।।
অথবা যখন কোন ম্যালপ্রাকটিশনার চিকিৎসকের স্ত্রীকে স্বামীর হাত যশের গুনগান করতে শুনি।কিংবা কোন মাদক ব্যবসায়ীর বউকে তার স্বামীর উদারতার মানবতার গল্প করতে শুনি।।

আমার সেইদিন দেখা রুপসী আর ঘুষখোর সরকারী চাকুরীজীবী,ম্যালপ্রাকটিশনার ডাক্তার,অসৎ ব্যবসায়ী এবং তাদের সমর্থন দানকারী পরিবার !!সৎভাবে এরা হয়ত ভালভাবেই বাঁচতে পারেন।জোটাতে পারেন না দামী শাড়ী,গয়না,গাড়ী,বাড়ী,লাক্সারী!!!

 

তাহলে বস্তিবাসী রুপসী আর অট্টালিকাবাসী ঘুষখোর চাকুরীজীবী,ম্যালপ্রাকটিশনার ডাক্তার,দুর্নীতিবাজ অসৎ ব্যবসায়ীর পার্থক্য কি?

___________________________

ডা. শিরিন সাবিহা তন্বী । মেডিকেল অফিসার । শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল।
জনপ্রিয় শক্তিমান কথাশিল্পী। ডাক্তার প্রতিদিনে নিয়মিত লেখেন।



 


নির্বাচন এর জনপ্রিয়