|

ফুলের ঘায়ে মূর্চ্ছা যাওয়া দুলালীও বললে, আমি কিন্তু সিজার করাবো


Published: 2016-12-28 18:50:20 BdST, Updated: 2017-03-27 04:51:46 BdST

 


মডেল ছবি

________________________

ডা. জামান অ্যালেক্স
______________________________

 

প্রসঙ্গ : সিজারিয়ান সেকশন

বুকের ব্যথায় বাসায় চিৎপটাং হয়ে পড়ে ছিলাম।আমাকে দেখতে দূরসম্পর্কীয় এক সমাজসেবী জনদরদী(!) আঙ্কেল বাসায় এলেন....

নিতান্ত দরিদ্র অবস্থা থেকে উনি এখন কোটি কোটি টাকার মালিক, কিভাবে এত টাকার মালিক হলেন-সেটা আপাতত বাদ দেই। তার চেয়ে আঙ্কেল এর সাথে কথোপকথোনের কিছু নমুনা দেইঃ

আঙ্কেলঃ এখন অবস্থাটা কি বাবা?

আমিঃ আঙ্কেল, অবস্থা সুবিধার না, যেকোন দিন 'ফুস'...

আঙ্কেলঃ 'ফুস' মানে!!

আমিঃ বাদ দেন, আপনার ক্লিনিক কেমন চলছে-সেটা বলেন...

আঙ্কেলঃ তোমাগো দোয়া'য় ভালো চলতেছে, এলাকার মানুষের সেবা দিতে দিতে আমার জান যায় যায়। গত মাসে আমার ক্লিনিকে ৫৯ টা সিজার হইছে....

আমিঃ বলেন কি! ৫৯ টা! মানে প্রতিদিন প্রায় দুইটা করে! ভালোই তো।নরমাল ডেলিভারী কয়টা?

আঙ্কেলঃ হে হে, আমার ক্লিনিকে নরমাল ডেলিভারী বইলা কোন ঝামেলা নাই, সব সিজার।দোয়া কইরো, ক্লিনিকটারে মেডিকেল কলেজ এন্ড হাসপাতাল বানামু, এলাকার মানুষরে আরো সেবা দিমু, তুমি ডিরেক্টর বোর্ডে থাকবা।আহহারে, আজকে যদি মা'য় বাঁইচা থাইকা নিজে মেডিকেল কলেজটা দেইখা যাইতে পারতো, যদি দেইখা যাইতে পারতো-আমি ক্যামনে এলাকার মানুষের উপকার করতাছি......( বলে উনি নিজের চোখের পানি মোছা শুরু করলেন) ....

আবেগঘন পরিবেশ, তবে সে আবেগ আমাকে স্পর্শ করলো না। ক্লিনিক মালিক থাকা অবস্থায় উনি মাসে ৫৯ টা সিজার অপারেশনের বন্দোবস্ত করেন, মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল হলে এলাকায় নরমাল ডেলিভারী বলে বলে যে কোনো ব্যাপার থাকবে না, সেই ম্যাসাকার চিন্তা করে আমি আতঙ্কিত.....

২.....

এক ধনীর আদরের দুলালী'র গল্প বলি।ফুলের ঘাঁ'য়ে সে মূর্চ্ছা যায়-এমনভাবে তার দিনকাল যায়।ধূমধাম করে একসময় মেয়েটির বিয়ে হলো।মেয়েটি প্রেগন্যান্টও হলো।নতুন একটি প্রাণ যখন পৃথিবীতে সমাগত তখন মেয়েটি আমার সাথে যোগাযোগ করলো। এবার সে কথোপকথনের নমুনা দেইঃ

মেয়েঃ দেখেন ভাইয়া, আমাকে কিন্তু একটা ভালো ম্যাডামের অ্যাড্রেস দিতে হবে....

আমিঃ আমি সবাইকে একজন ম্যাডামের কাছেই যেতে বলি, উনি রুলস ফলো করেন। কাজেই তুমি ম্যাডাম "X" -এর সাথে যোগাযোগ করো, উনি ..... জায়গায় বসেন ....

মেয়েঃ উনি 'সুইট' তো?

আমিঃ(আমি বিরক্ত) ম্যাডাম সুইট কি সুইট না -সেটা তো প্রাইম ইস্যু না। তোমার বেবীকে তিনি সঠিকভাবে এ পৃথিবীতে আনতে পারার ব্যবস্থা করতে পারছেন কিনা--সেটা প্রাইম ইস্যু....

মেয়েঃ আচ্ছা, শোনেন, আমি কিন্তু সিজার করাবো, নরমাল ডেলিভারী আমি ভীষণ ভীষণ ভয় পাই।আচ্ছা, আপনি যে ম্যাডামের কথা বললেন-উনি সিজার করবেন তো?.....

আমি দীর্ঘনিঃশ্বাস ফেললাম।আমি জানি, যে ম্যাডামের কাছে আমি মেয়েটিকে রেফার করেছি-সে ম্যাডাম প্রয়োজন না পড়লে সিজারিয়ান সেকশনে যাবেন না। আমি জানি, ফুলের ঘাঁয়ে মূর্চ্ছা যায় যে মেয়েটি, সে হয়তো তার সিজারিয়ান অপারেশনের জন্য শেষ পর্যন্ত অন্য কোনো চিকিৎসককে বেছে নিবে.....

৩.....

USG of Pregnancy Profile করার জন্য হাসব্যান্ড-ওয়াইফ আনন্দিত চিত্তে বাসা থেকে বের হলো। আল্ট্রাসনোগ্রাম করার সময় সনোলজিস্ট বললেন, বাচ্চার ওজন ৩.৬ কেজি, বাচ্চা কিছুটা ওভারওয়েট।

রিপোর্ট নিয়ে হাজব্যান্ড-ওয়াইফ চিন্তিত মুখে গাইনী এন্ড অবস্ ম্যাডামকে দেখানোর পরপরই ডাক্তার ম্যাডাম সিজার অপারেশন করবার জন্য ব্যতিব্যস্ত হয়ে উঠলেন। বাচ্চা ওভারওয়েট, পেটের পানিও নাকি কম, বাচ্চার সমস্যা হবার সম্ভাবনাও নাকি প্রবল.....

যে আনন্দ নিয়ে হাজব্যান্ড-ওয়াইফ সকালে বাসা থেকে বের হয়েছিল, দুপুর গড়াতে না গড়াতেই সেটা ভয়ে রূপ নিলো।অনাগত সন্তানের কষ্ট হচ্ছে ভেবে সংশ্লিষ্ট ডাক্তার ম্যাডামের কথামতো ওয়াইফ সাথে সাথেই হাসপাতালে ভর্তি হলো, স্বামী বেচারা হন্তদন্ত হয়ে ছুটে অল্প সময়ের ভিতর টাকা-রক্ত ম্যানেজ করার ব্যবস্থা করলো....

সিজারিয়ান সেকশনের মাধ্যমে বাচ্চা এ পৃথিবীতে আগমন করলো। বাচ্চার ওয়েট ২.৭ কেজি.....

■■এবার একটু এনালাইসিসে আসি।উন্নত বিশ্বে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে বাচ্চা জন্ম দেবার হার গড়পরতায় ১৫%, আমাদের দেশে এ হার ২৪%, বেসরকারী হাসপাতাল ও ক্লিনিকগুলোতে এ হার ৮০%। নিঃসন্দেহে বেশী। পাশ্চাত্ত্য কান্ট্রিগুলোর সাথে জটিল অপারেশনে আমাদের তাল মেলাতে নাকানিচুবানি খেতে হলেও সিজারিয়ান অপারেশনে তারা বাঙালিদের কাছে নস্যি। ভালোই....

এ অনভিপ্রেত অবস্থার জন্য দায়ী কে?

যারা দায়ী তাদের কিন্তু আমি #গুরুত্বঅনুযায়ী #সিকোয়েন্সিয়ালী উল্লেখ করেছি।

প্রথমত, ক্লিনিক ও বেসরকারী হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। আপনারা জানেন কিনা জানিনা, দেশের অধিকাংশ ক্লিনিক ও হাসপাতালগুলো চলছে সিজারিয়ান অপারেশনের রমরমা ব্যবসা দিয়ে, বিশেষত প্রান্তীয় অঞ্চলে।তারা এ ব্যাপারে চিকিৎসকদের উপর কন্টিনিউয়াসলি প্রেসার ক্রিয়েট করে যায়, যে চিকিৎসকের সিজারিয়ান সেকশন করার হার কম তাকে কিছুদিনের মাঝেই ক্লিনিক থেকে ছুড়ে ফেলা হয়। মূল এই কালপ্রিটগুলোর কথা মিডিয়ায় কখনোই আসে না.....

দ্বিতীয়ত দায়ী আমাদের নারীসমাজের একাংশ, স্পেসিফিকেলী মধ্যবিত্ত ও উচ্চবিত্ত পরিবারের নারীরা।পাশ্চাত্যের Duchess of Cambridge: Catherine Middleton থেকে শুরু করে দেশের পাশে ইন্ডিয়ার ঐশ্বরিয়া পর্যন্ত তাদের সন্তানকে নরমাল প্রসিডিউরের মাধ্যমে পৃথিবীর আলো দেখান।আর অবস্থাসম্পন্ন বাঙালি নারীরা এ সময়টায় অহেতুক ভীত হয়ে সিজারিয়ান অপারেশনকে বেছে নেন। প্রয়োজন ব্যতিরেকে সিজারিয়ান অপারেশনকে বেছে নিয়ে তারা মাতৃত্বের পরিপূর্ণ স্বাদ থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন- তারা কি সেটা জানেন?

তৃতীয়ত দায়ী কিছু দূর্নীতিবাজ চিকিৎসক।ভীতির বর্শবর্তী হয়ে নারীদের একাংশ যখন দোদুল্যমান থাকেন, সেসময় ক্লিনিক-প্রাইভেট হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ সিজারিয়ান অপারেশনের প্রতি তাদের মোটিভেট করেন। উপযুক্ত প্ল্যাটফর্ম যখন তৈরি হয়, তখন অন্ধকার জগতের কিছু চিকিৎসক সিজারিয়ান অপারেশন কমপ্লিট করে Vicious Cycle কে চলমান রাখেন....

৪.....

সিজারিয়ান অপারেশন করার জন্য কারা উপযুক্ত সেটি নিয়ে দু'টি ঘটনা মনে পড়ে গেলো....

■■ম্যাডাম ক্লাসে সিজারিয়ান অপারেশনের Indication নিয়ে পড়াচ্ছিলেন। সব পয়েন্ট বলার পর তিনি বললেন, 'আরেকটি পয়েন্ট আছে, কিন্তু পরীক্ষায় তা বলা যাবে না '....সেটি কি- তা জানতে চাইলে ম্যাডাম হেসে বলেছিলেন, 'যদি প্রেগন্যান্ট লেডি নিজে চায় যে তার সিজার হোক'।

■■এবারের ঘটনা সার্জারী ওয়ার্ডে।সার্জারীর এক অধ্যাপক দু'চোখে Obs & Gynae ম্যাডামদের দেখতে পারতেন না, দুর্মুখেরা বলে-গাইনীর কোন এক ম্যাডাম নাকি স্যারকে ছ্যাঁকা দিয়েছিলেন, সে থেকে দা-কুমড়া সম্পর্ক...

যাই হোক, একদিন ক্লাসে স্যার হঠাৎ জিজ্ঞেস করলেন, ' বলতো, What is the indication of Cesarean section?'.....আমরা একটু চুপ করে ঘটনা বোঝার চেষ্টা করলাম, সার্জারীর ক্লাসে অবস্ এর কোয়েশ্চেন কেন?

স্যার একটু চুপ থেকে নিজেই উত্তর দিলেন, 'আরে গাধারা, প্রেগন্যান্সি, প্রেগন্যান্সি, এটাও জানো না!তোমাদের Obs & Gynae এর ম্যাডামরা তো সেটাই করে'.....এটা বলে স্যার Obs & Gynae 'র ম্যাডামদের যথেষ্ঠ পচানো হয়েছে মনে করে বেশ আত্মশ্লাঘা অনুভব করলেন.....

৫....

দেশের বাইরের এক ঘটনা বলি।স্থান-সৌদি-আরব।

বাঙালি এক প্রেগন্যান্ট মহিলা সৌদি এক হাসপাতালে ঢুকে ডাক্তারের কথাবার্তা শুনে মুখ পাংশু বর্ণ করলেন....

তার প্রথম সন্তান ঢাকায় সিজারিয়ান সেকশনের মাধ্যমে হয়েছিলো। একবার সিজারিয়ান অপারেশন হলে বাকীগুলোও সিজারিয়ান করতে হয় এই কনসেপ্ট বাঙালি ডাক্তাররা তাকে দিয়ে দিয়েছিলেন।এটি আমাদের দেশের ডাক্তারদের একটি অলিখিত সংবিধান....

ভেবেছিলেন, সৌদিতে গিয়ে রাজকীয় হালে আরামসে পরবর্তী সিজারিয়ান অপারেশন করাবেন। ঘটনা সেরকম হলো না। সৌদি আরবের ডাক্তাররা তার ঘাম ছুটিয়ে পরবর্তী বাচ্চাকে নরমাল ডেলিভারী করালেন। তৃতীয় বাচ্চার ক্ষেত্রেও নরমাল ডেলিভারী...

এদেশের অলিখিত সংবিধানকে সৌদি'র রক্ষণশীল কাঠামোর ডাক্তাররা অনেকটা ছুড়ে ফেলে দিলেন।আফসোস....

৬....

লেখাটা লেখার আগে নেটে কয়েকদিন এনিয়ে ঘোরাঘুরি করলাম।নরমাল কন্ডিশনে সিজারিয়ান সেকশনের কোনো ভালো দিক আছে কিনা--সেটা জানার জন্য। কিছু স্টাডিতে এর কিছু পজিটিভ দিককে তুলে ধরার চেষ্টা করা হয়েছে, কিন্তু কাউন্টার অ্যাটাকে সেগুলো ধোপে টিকছে না। একটা পজিটিভ সাইড তুলে ধরলে তিনটা নেগেটিভ পয়েন্ট দাঁড়া হয়ে যাচ্ছে। মোদ্দা কথা, এখন পর্যন্ত Appropriate Indication ছাড়া নরমাল কন্ডিশনে Cesarean section এর কোনো যৌক্তিকতা নেই......

৭....

লেখাটা শেষ করি....

হাজার হাজার বছর ধরে সন্তান জন্মদানের যে পদ্ধতি প্রাকৃতিকভাবে প্রচলিত-- প্রয়োজনের তাগিদে তাকে আমরা কিঞ্চিত মোডিফাই করতে পারি, কিন্তু সে পদ্ধতির আমূল পরিবর্তন করাটা অনুচিত।

প্রাকৃতিক সিস্টেমের বড় রকমের পরিবর্তন কিন্তু প্রকৃতি মেনে নিবে না।আমরা যারা এ বড় পরিবর্তনে জেনে কিংবা না জেনে ভূমিকা রেখে চলছি--নিজেদের স্বার্থেই সে ব্যাপারে আমাদের সতর্ক হবার প্রয়োজন। আমরা ভুলে যাচ্ছি Nature has its own way to take the revenge, ইভ্যুলিউশন ( Evolution) কিন্তু তাই বলে।প্রকৃতির সেই Revenge কিন্তু আমাদের জন্য খুব একটা সুখকর হবার কথা নয়. ।

____________________________

 

লেখক ডা. জামান অ্যালেক্স। জনপ্রিয় কথাশিল্পী। ডাক্তার প্রতিদিনে তার লেখা লাখো পাঠক পড়ে থাকেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।