Ameen Qudir

Published:
2019-01-05 11:36:42 BdST

বাড়ী বাড়ী ভিজিট চিকিৎসক ফেরিঅলা :বাড়িতে গেলে ৪০০; ফোনে ১০০ টাকা


 

 

ডা. কামরুল হাসান সোহেল
_____________________________

বাহ! কি চমৎকার উদ্যোগ!!!

চিকিৎসক এখন তার পেশা ফেরি করে বেড়াবেন, বাড়ী বাড়ী ভিজিট করে রুগিদের চিকিৎসা দিবেন! রোগিদের নানা পরামর্শ দিবেন ফোনে! আর এইজন্য তারা পাবেন বাড়ী বাড়ী গিয়ে চিকিৎসা দিলে ৪০০ টাকা আর ফোনে পরামর্শ দিলে ১০০ টাকা!

আমাদের দেশের রুগিরা নানা কারণে ডাক্তারদের কাছে যেতে পারেনা কিন্তু ঠিকই পাশের ফার্মেসির দোকানদারের কাছ থেকে চিকিৎসা নিতে পারে! তারা গরীব, চিকিৎসক পাওয়া যায়না এইসব কারণে রুগিরা ডাক্তারের কাছে যেতে পারেনা? আসলে ডাক্তারকে ভিজিট দিতে হবে তাই ডাক্তারের কাছে যায়না এখানে অন্য কোন কারণ নেই। তাদের সাইকোলজি হল ডাক্তারকে ভিজিট দেয়া মানে টাকাটা জলে ফেলা তারচেয়ে সেই টাকায় বরং ফার্মেসির দোকানদারকে বলে ঔষধ খাওয়া অনেক বুদ্ধিমানের কাজ। আর সেই সাইকোলজির সুযোগ কাজে লাগায় ফার্মেসির দোকানদাররা। তারা দুই দিনের এন্টিবায়োটিক দেয় রুগি তা ই খায়,খেয়ে একটু ভাল হলে আর ঔষধ খায় না। এইভাবে এন্টিবায়োটিক রেজিস্ট্যান্ট হয়ে যাচ্ছে ধীরে ধীরে সব রুগি।

বাংলাদেশে এখন এমবিবিএস পাস রেজিস্টার্ড ডাক্তারের সংখ্যা প্রায় ৯০,০০০। বাংলাদেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলেও আজকাল এমবিবিএস পাস ডাক্তার আছে, প্রত্যন্ত অঞ্চলেও সরকারি, বেসরকারি হাসপাতাল, ক্লিনিক বা ডায়াগনস্টিক সেন্টার আছে এবং সেখানে মিনিমাম এমবিবিএস পাস ডাক্তার আছে। তারপরও রুগিরা যদি ডাক্তারের কাছে না এসে ফার্মেসির দোকানদারের কাছ থেকে চিকিৎসা সেবা নেয় তার দায় কি ডাক্তারের?

রুগি ফার্মেসির দোকানেদারের কাছ থেকে যেন চিকিৎসা সেবা না নেয় তার জন্য বাড়ি বাড়ি ভিজিট করে ডাক্তারকে চিকিৎসা দিতে হবে? আর বাড়ি বাড়ি গিয়ে সাধারণ রোগ ছাড়া তেমন আর কি রোগের চিকিৎসা দেয়া সম্ভব? জটিল রোগের চিকিৎসা দেয়া তো সম্ভব না আর জটিল রোগ নির্ণয় করতে হলে ইনভেস্টিগেশন করতে হবে আর তা করতে হলে হাসপাতাল বা ডায়াগনস্টিক সেন্টারে রুগিকে পাঠাতে হবে। সাধারণ রোগের চিকিৎসার জন্য বাড়ি যেতে হবে কেন এইসব রুগিরা তো নিজেই পায়ে হেটে সরকারি, বেসরকারি হাসপাতাল বা ক্লিনিকে এসে ডাক্তারের সেবা নিতে পারে।

আর ফোনে পরামর্শ? রুগি না দেখে ফোনে পরামর্শ দেয়াটা কি যৌক্তিক? রুগি কি ঠিকঠাক মতো তার সবগুলো সমস্যার কথা বলতে পারে? ডাক্তার বারবার জিজ্ঞেস করেই রুগির কাছ থেকে রোগের সঠিক ইতিহাস জানতে পারেনা তাহলে ফোনে কিভাবে তা জানা সম্ভব? রুগির শারিরীক পরীক্ষা ছাড়া কিভাবে রোগ সম্পর্কে ধারণা পাওয়া সম্ভব আর রোগ সম্পর্কে নিশ্চিত না হয়ে কিভাবে পরামর্শ দেয়া সম্ভব?

ডাক্তারি পেশার সম্মান ধরে রাখা উচিৎ তাতে রোগি এবং ডাক্তার উভয়েরই মঙ্গল।
_______________________________

 


ডা. কামরুল হাসান সোহেল :
আজীবন সদস্য, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ , কুমিল্লা জেলা।
কার্যকরী সদস্য স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ
আজীবন সদস্য,বিএমএ কুমিল্লা।
সেন্ট্রাল কাউন্সিলর, বিএমএ কুমিল্লা


ক্লিনিক-হাসপাতাল এর জনপ্রিয়