|

ডাক্তারদের গৌরব বিএসএমএমইউ বাড়ালো দেশের গৌরব


Published: 2017-01-06 08:59:04 BdST, Updated: 2017-02-24 09:35:44 BdST

       

 

 

ডাক্তার প্রতিদিন
__________________

 


  বাংলা দেশের একমাত্র মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) এশিয়ার সেরার তালিকায় মর্যাদার জায়গা করে নিয়েছে।


ভেলোরের খ্রিস্টান মেডিক্যাল কলেজ, ইউনিভার্সিটি কলেজ অব মেডিক্যাল সায়েন্স, নিজামস ইন্সটিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্সকে পেছনে ফেলে দিয়েছে বিএস এম এম ইউ। একমাত্র এগিয়ে আছে
নয়াদিল্লীর অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অব মেডিক্যাল সায়েন্স বা এইমস।
পাকিস্তানী কোন প্রতিষ্ঠান এই তালিকার ধারে কাছে নেই।

সম্প্রতি স্পেনের সিমাগো রিসার্চ গ্রুপ ও যুক্তরাষ্ট্রের স্কপাস প্রকাশিত এক আন্তর্জাতিক জরিপে এই তথ্য জানা যায়।

 

 

বিএস এম এম ইউর তরফ থেকে জানানো হয়েছে ,
এ পর্যন্ত এ বিশ্ববিদ্যালয়ে ১৪৪৭টি গবেষণা কর্ম সম্পন্ন হয়েছে। ২০১৬ সালে ৭০ জন শিক্ষক ও ২০০ জন শিক্ষার্থীকে গবেষণার জন্য অনুদান দেওয়া হয়েছে। এখানে শিক্ষকদের পাশাপাশি শিক্ষার্থীদেরও ৫ বছরের মধ্যে দুই বছর বাধ্যতামূলক গবেষণা করতে হয়।

 

বিএস এম এম ইউর তরফ থেকে আরও জানানো হয়েছে,
১৯০৪ শয্যা বিশষ্টি বিএসএমএমইউ'র বহির্বিভাগে প্রতিদিন ৫ হাজারেরও বেশি রোগী সেবা নিতে আসেন। রয়েছে ৭টি অনুষদ ও ৫৩টি বিভাগ, যার অধিভুক্ত কলেজের সংখ্যা ৪২টি। ৯০টিরও বেশি উচ্চতর মেডিক্যাল শিক্ষা বিষয়ক কোর্স এ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পরিচালিত হচ্ছে। জাপানের নাগোয়া বিশ্ববিদ্যালয়, ভারতের এইমস, যুক্তরাষ্ট্রের জন হপকিন্স, মাহিদোল বিশ্ববিদ্যালয়, রক ফেলার ফাউন্ডেশন, ইউনিসেফ, আইসিডিডিআর'বি, ইএসএইড, সেভ দি চিলড্রেন, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাসহ বিশ্বখ্যাত বিশ্ববিদ্যালয় ও চিকিৎসা প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে বিএসএমএমইউ-র রয়েছে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগসহ গবেষণা চুক্তি।

 

এখানে রয়েছে একটি নিজস্ব রিসার্চ এডমিনিস্ট্রেশন এন্ড প্রোমোশন সেল, যার উদ্যোগে প্রথমবারের মতো বিশ্ববিদ্যালয় গবেষণা দিবস পালন করাসহ তিনজন গবেষককে বিশ্ববিদ্যালয় পদক প্রদান করা হয়। সম্প্রতি শিকাগো ইউনিভার্সিটির সঙ্গে উচ্চতর শিক্ষা ও গবেষণা বিষয়ে সমঝোতা চুক্তি স্বাক্ষর হওয়ায় এসব কার্যক্রমে যোগ হয়েছে নতুন মাত্রা। এর ফলে অসংক্রামক রোগ নিয়ে গবেষণাসহ অন্যান্য কার্যক্রম পেয়েছে প্রাতিষ্ঠানিক রূপ।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।